,
শিরোনাম

যৌক্তিক কারণে স্ত্রীও তালাক নিতে পারে

6 July 2017, 11:11 pm

হাফেজ মাওলানা মো. সাইফুল্লাহ মানসুর : স্বামী-স্ত্রীর সুদৃঢ় বন্ধনের ওপর নির্ভর করে একটি পরিবারের উন্নতি ও সমৃদ্ধি। কিন্তু এই বন্ধন অনেক সময় বিভিন্ন কারণে অতৃপ্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

তখনই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিচ্ছেদ বা তালাকের ঘটনা ঘটে। ইসলাম তালাককে সর্বনিম্ন ভাল কাজ বলে স্বীকৃতি দিয়েছে।

তবে যতক্ষণ পর্যন্ত যে কোন উপায়ে এই বন্ধন টিকিয়ে রাখা যায়, তার ওপরই উৎসাহ প্রদান করে ইসলাম।

স্বামী কর্তৃক তালাক প্রদান সম্পর্কে আমরা অনেকেই জানি। কিন্তু স্ত্রী কখন স্বামীর কাছ থেকে তালাক নিতে পারবে, তা আজকের আলোচনার বিষয়।

যদি স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে মতানৈক্য চরম পর্যায়ে যায়, কোনভাবেই এর সমাধান করা না যায়, স্ত্রী যদি স্বামীর প্রতি সন্তুষ্ট না থাকে ও তার জৈবিক-বৈষয়িক হক আদায় না হয় এবং তারা যদি আশঙ্কা করে যে আল্লাহ নির্ধারিত সীমারেখা রক্ষা করে চলতে পারবে না, তবে উভয়ের পরিবার ঘরোয়াভাবে মীমাংসা করে তার স্বামীকে কিছু (মোহর বা অন্যান্য দ্রব্য থেকে) প্রদান করে তালাক গ্রহণ করতে পারবে।

এরূপ দেওয়া ও নেওয়ার মধ্যে কোন পাপ নেই। এটাকে খোলা তালাক বলে। তবে স্বামী যে পরিমাণ সম্পদ তার স্ত্রীকে দিয়েছিল, তার চেয়ে বেশি পরিমাণ বিনিময় হিসেবে নিতে চাইলে তা বৈধ হবে না।

মহান আল্লাহ বলেন, যদি তোমরা আশঙ্কা কর, উভয়ে নির্ধারিত সীমার মধ্যে অবস্থান করতে পারবে না, তাহলে স্ত্রী কিছু বিনিময় দিয়ে স্বামী থেকে বিচ্ছেদ লাভ করায় কোন ক্ষতি নেই। সুরা-বাকারা, আয়াত-২২৯।

এটাও মনে রাখার বিষয় যে স্ত্রী যদি বিনা কারণে তার স্বামীর কাছে তালাক প্রার্থনা করে, তাহলে সে অত্যন্ত পাপী হবে।

লেখক : সভাপতি, ইসলাম প্রচার পরিষদ, খুলনা।

চেয়ারম্যান, খুলনা হোমিও চিকিৎসা কেন্দ্র।

Print Friendly, PDF & Email