,
শিরোনাম

স্বামী মারা গেলে স্ত্রীর পুনঃবিবাহের বিধান

23 July 2017, 1:17 pm

হাফেজ মাওলানা মো. সাইফুল্লাহ মানসুর : কোন স্ত্রীর স্বামী মারা গেলে স্ত্রীর করণীয় কী এবং বিধবা স্ত্রী কখন পুনঃবিবাহ করতে পারবে, কোরআন-হাদিসের আলোকে তা আলোচনা করা হল।

স্ত্রীর ইদ্দাত বা শোক পালন :

স্বামী মারা গেলে স্ত্রীকে চার মাস ১০ দিন ইদ্দাত পালন করতে হবে। সেটা স্বামীর সাথে সহবাস হোক বা না হোক, উভয় অবস্থায় একই বিধান।

আল্লাহ তায়ালা বলেন, তোমাদের মধ্যে থেকে যারা মারা যায়, তাদের পরে যদি স্ত্রীরা জীবিত থাকে, তাহলে চার মাস ১০ দিন নিজেদেরকে বিবাহ থেকে বিরত রাখতে হবে। সুরা-বাকারা, আয়াত-২৩৪।

গর্ভবতী নারীর ইদ্দাত :

স্বামীর মৃত্যুর পর গর্ভবতী স্ত্রীর জন্য ইদ্দাত হচ্ছে সন্তান প্রসব পর্যন্ত। সন্তান যে দিন প্রসব করবে, সেই দিন থেকে স্ত্রী সাজসজ্জা ও বিবাহের প্রস্তুতি নিতে পারবে।

হজরত সুবায়াহ (রা.) নিজের ব্যাপারে রাসুলকে (সা.) জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, সন্তান প্রসবের পর থেকেই তুমি ইদ্দাত হতে বেরিয়ে গেছ। সুতরাং এখন ইচ্ছা করলে বিয়ে করতে পার।

সাঈদ ইবনে মুসাইয়াব (রহ.) ও আবুল আলীয়া (রহ.) বর্ণনা করেন, বিধবাদের জন্য ইদ্দাত পালন করার পেছনের রহস্য হল, স্বামী মারা যাওয়ার সময় স্ত্রীর গর্ভাশয়ে ভ্রুণ থাকার সম্ভাবনা থাকলে চার মাস ১০ দিনের মধ্যেই গর্ভধারণের বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে।

যেসব কাজ থেকে বিরত থাকতে হবে :

নতুন করে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া, অধিক সাজগোজ করা, সুগন্ধি ব্যবহার করা, কারুকাজমন্ডিত কাপড় পরা, অলংকার ব্যবহার করা, মেহেদী ও আলতা ব্যবহার করা এবং কলপ ও সুরমা ব্যবহার করা।

অর্থাৎ যাতে করে ইদ্দাতরত অবস্থায় অন্য পুরুষরা বিবাহের জন্য আকৃষ্ট না হতে পারে। তবে ইদ্দাতরত অবস্থায় ইশারা-ইঙ্গিতে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়া বা বিয়ের আকাঙ্খা মনের মধ্যে থাকলে তা অপরাধ বলে গণ্য হবে না।

লেখক : সভাপতি, ইসলাম প্রচার পরিষদ, খুলনা।

চেয়ারম্যান, খুলনা হোমিও চিকিৎসা কেন্দ্র।

মোবাইল : ০১৯১৩-৩৩৩২৩১

Print Friendly, PDF & Email