গাজীপুরে ৩৫ লাখ টাকার বনভূমিতে উঠছে ৫ তলা!

আলোকিত প্রতিবেদক : গাজীপুরে বনের মূল্যবান জমিতে পাঁচ তলা বাড়ির নির্মাণ কাজ চলছে।

রাজেন্দ্রপুর রেঞ্জের মনিপুর বিট অফিসের কাছে বেগমপুর হোতাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পশ্চিম পাশে সান পাওয়ার সিরামিকস। কারখানাটির উত্তর পাশে ওই বাড়ির কাজ চলছে।

এলাকাবাসী জানান, সচিবালয়ে কর্মরত আবদুল মতিন স্থানীয় তারা ডাক্তারের কাছ থেকে প্রায় ছয় শতাংশ জমি কিনেন। এসএ ৫৯৮ নং দাগের জমিটি বন বিভাগের নামে গেজেটভুক্ত।

প্রায় তিন মাস আগে তিনি পাঁচ তলা ফাউন্ডেশন দিয়ে নির্মাণ কাজ শুরু করেন। এরই মধ্যে দোতলার ছাদ ঢালাই সম্পন্ন হয়েছে। তাদের কারও ডিমারকেশনও নেই।

এ ছাড়া ওই দাগের জমি নিয়ে বন বিভাগের পক্ষে আদালতে মামলাও বিচারাধীন। বন্ধ রয়েছে খাজনা-খারিজ।

ওই এলাকায় বিঘাপ্রতি জমির বর্তমান বাজারমূল্য কমপক্ষে দুই কোটি টাকা। সে হিসাবে দখলীয় জমির মূল্য দাঁড়ায় প্রায় ৩৫ লাখ টাকা।

এভাবে বনের জমি দখল হলেও বিট কর্মকর্তা কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেন না। টাকার বিনিময়ে অনেক কিছুই হচ্ছে বলে জানান তারা।

একজন বন কর্মকর্তা বলেন, যেখানে জবর দখল হওয়া বনভূমি উদ্ধারে প্রশাসন হিমশিম খাচ্ছে, সেখানে নতুন দখল জটিলতা বাড়াচ্ছে। স্থাপনা নির্মাণের শুরুতে বাধা না দেওয়া ও উচ্ছেদে অনীহা দখলদারদের উৎসাহ দিচ্ছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আবদুল মতিনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

অফিসে না পেয়ে মোবাইলে বিট কর্মকর্তা নূর মোহাম্মদের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি কথা বলতে রাজি হননি।

image_printপ্রিন্ট করুন
Share
আরও খবর