গাজীপুরের বাউপাড়া বিটে বাগদাদের বন দখল!

আলোকিত প্রতিবেদক : গাজীপুরে মূল্যবান বনভূমি দখল করেছে বাগদাদ হোল্ডিং লিমিটেড।

জাতীয় উদ্যান রেঞ্জের বাউপাড়া বিটের জাঙ্গালিয়াপাড়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, ওই এলাকার বাংলাবাজারের উত্তর দিকে মাটি ভরাট করছে বাগদাদ হোল্ডিং। বাউন্ডারির ভেতরে জমি প্রায় ৩০ বিঘা।

প্রজেক্টটিতে যেতে গেজেটভুক্ত বনভূমি দখল করে আধা পাকা রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। ১০ ফুট প্রস্থের ওই রাস্তার দৈর্ঘ্য অন্তত ৫০০ ফুট।

রাস্তাটি দিয়ে দেদারসে চলছে মাটিবোঝাই ট্রাক। যা বন আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ।

এ ছাড়া প্রজেক্টটির চারদিকে বনভূমি। পূর্ব ও উত্তর পাশে আকাশমনি বাগান।

সম্প্রতি ডিমারকেশন করে খুঁটি পুঁতেছে বিট অফিস। খুঁটিগুলো পড়েছে বাউন্ডারি ওয়ালের ভেতরে।

তবে বিট কর্মকর্তা খন্দকার আরিফুল ইসলাম আলোকিত নিউজের কাছে দাবি করেন, বাউন্ডারির ভেতরে বনের কোন জমি নেই।

বাউন্ডারির ভেতরে বন বিভাগের খুঁটি

এই ডিমারকেশনের ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বিট অফিস লোকাল সার্ভেয়ার দিয়ে মাপজোখ করে বুঝিয়ে দিয়েছে। আইনত জেলা প্রশাসক তথা সেটেলমেন্ট অফিসার ব্যতীত তা হওয়ার সুযোগ নেই।

সংশ্লিষ্ট একজন জানান, বনের সাথে জটিলতা থাকায় দীর্ঘদিন ধরে কাজ বন্ধ ছিল। রফাদফা করে ডিসেম্বর থেকে কাজ শুরু হয়েছে।

উপস্থিত কয়েকজন বলেন, বনের দালাল আন্তা মধ্যস্থতা করেছেন। তিনি ডিএফওর ঘনিষ্ঠ। পাশের আকাশমনি বাগানের প্লটও তার।

এলাকাবাসী জানান, বাগদাদ হোল্ডিং সম্প্রতি একটি বিকল্প রাস্তা করেছে। সেখানেও বনের জমি রয়েছে।

কতটুকু জমির ডিমারকেশন হয়েছে, জানতে চাইলে বিট কর্মকর্তা বলেন, ২০১৫ সালে চার একর ১৫ শতাংশের হয়েছে। এখন আড়াই একরের হচ্ছে।

মাপজোখ জেলা প্রশাসনের সাথে যৌথভাবে হচ্ছে কি না, প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, যৌথ পরে হবে।

বনভূমি দখল করে রাস্তার বিষয়ে আরিফুল ইসলাম বলেন, এটা বন ফেরত নিতে পারবে না। এটা সম্ভবও না।

এ ব্যাপারে বাগদাদ হোল্ডিংয়ের মালিক আবুল হাসনাতের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

image_printপ্রিন্ট করুন
Share
আরও খবর