গাজীপুরের হোতাপাড়ায় বনভূমি দখলে বেলায়েত ডাক্তারের দাপট!

আলোকিত প্রতিবেদক : গাজীপুরের মনিপুর বিটে বনভূমি দখল করে ভবন নির্মাণ চলছেই।

ঢাকা বন বিভাগের অধীন রাজেন্দ্রপুর রেঞ্জের এই বিটে বাণিজ্য এখন ওপেন সিক্রেট।

নানা ছুতো দেখিয়ে মূল্যবান বনভূমি দখলদারদের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে।

এসব নিয়ে আলোকিত নিউজ ডটকমে কয়েকটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশের পরও উচ্ছেদ অভিযান চালাচ্ছে না বন বিভাগ।

একাধিকবার তদন্ত হলেও অভিযুক্ত কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা রয়েছেন ধরাছোঁয়ার বাইরে।

সরেজমিনে প্রাপ্ত তথ্যমতে, বেগমপুর হোতাপাড়া এলাকার সিএস ও এসএ ৫৯৮ নং দাগের জমি বনের নামে গেজেটভুক্ত। বন বিভাগের পক্ষে আদালতে আরএস রেকর্ড সংশোধনীর মামলাও বিচারাধীন।

সেখানে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পশ্চিম পাশে সাড়ে তিন কাঠা জমিতে পাঁচ তলা ফাউন্ডেশন দিয়ে ভবন নির্মাণ করছেন বেলায়েত হোসেন ডাক্তার।

ভবনটির দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলার প্লাস্টারের কাজ তড়িঘড়ি করে চলছে। নিচ তলা সিটি টাইলস গ্যালারির কাছে ভাড়া দেওয়া হয়েছে।

গত ১৮ মে ‘গাজীপুরের মনিপুর বিটে দখল বাণিজ্য জমজমাট’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশের পর কাজ কিছুদিন বন্ধ ছিল।

সংশ্লিষ্ট একজন বলেন, বেলায়েত ডাক্তারের যৌথ ডিমারকেশনও নেই। পার্ট দাগের খালি জায়গা ক্রমান্বয়ে দখল হওয়ায় অবশিষ্ট বনভূমি বেহাত হচ্ছে।

ঘটনাস্থল অফিসের নিকটে হলেও জানতে চাইলে বিট কর্মকর্তা নূর মোহাম্মদ কোন কিছু না জানার ভান করেন।

এক পর্যায়ে তিনি আলোকিত নিউজকে বলেন, সেখানে তাদের জমি আছে না? কাজ তো করবেই।

কিছুক্ষণ পর বেলায়েত হোসেন ফোন করে বলেন, আপনি কোন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকের ডিগ্রি লাভ করেছেন? আমি গভর্নমেন্ট রেজিস্টার্ড ডাক্তার।

তিনি উত্তেজিত কণ্ঠে আরও বলেন, এগুলো রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, বনমন্ত্রী দেখবে। আপনি দেখার কে?

আরও পড়ুন : গাজীপুরের মনিপুর বিটে দখল বাণিজ্য জমজমাট

Print Friendly, PDF & Email
Share
  • 295
    Shares
আরও খবর