আলোকিত নিউজের সম্পাদককে হুমকি দিয়ে প্রতিবাদ পাঠালেন কাউন্সিলর মোশারফ

আলোকিত প্রতিবেদক : আলোকিত নিউজ ডটকমের সম্পাদক ও প্রকাশক রুবেল সরকারকে হুমকি দিয়ে প্রতিবাদপত্র পাঠিয়েছেন কাউন্সিলর মোশারফ হোসেন।

গত ২৭ আগস্ট ‘গাজীপুরে বনভূমিতে কাউন্সিলর মোশারফের মার্কেট ও বাড়ি’ শিরোনামে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশের পর শুরু হয় ব্যাপক তোলপাড়।

পরদিন সকাল নয়টা ৪১ মিনিটে সম্পাদক রুবেল সরকারকে ফোন করে কাউন্সিলর বলেন, ওটা আমার কাজ না। সহিদ হাজি করতাছে।

সহিদ হাজির পরিচয় জানতে চাইলে বলেন, ওখানকার একজন লোক। আমার কোন বিল্ডিং-টিল্ডিং হয় না।

তিনি আরও বলেন, হে মিয়া, আপনাদের সহযোগিতা আমার লাগব না? লোক পাঠিয়ে দিলে কইয়া দিতাম, কিছু খরচপাতি দিয়ে দেও।

পরে বিকেল তিনটা ২০ মিনিটে ফোন করে মোশারফ বলেন, আমার বাড়ি বাংলাবাজার না। আমার বাড়ি তো আরও দূরে।

নিউজের আপত্তি অংশগুলো লিখিতভাবে জানাতে বললে বলেন, আরে নাহ, আপনি কেন লেখলেন? আমি সাংবাদিক ক্লাবে বইসা সিদ্ধান্ত নিমু।

এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে দেখে নেওয়া হবে বলে হুমকি দেন।

এরপর রাতে ই-মেইলে একটি প্রতিবাদপত্র পাঠিয়ে আবারও ফোন করেন ২২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোশারফ।

এতে বলা হয়, প্রকাশিত নিউজটি সঠিক নয়। কুচক্রী মহল মিথ্যা তথ্য দিয়ে আমার সুনাম ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা করছে।

প্রতিবাদপত্রে আরও বলা হয়, যে বাড়ির ছবিটা দেওয়া হয়েছে, সে বাড়ি আমার নয়। সেটা সহিদ হাজির বাড়ি।

প্রতিবেদকের বক্তব্য : সরেজমিনে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে। কাউন্সিলর গেজেটভুক্ত ২৩০ নং দাগ সরকার অবমুক্ত করে দিয়েছে বলে যে বক্তব্য দিয়েছিলেন, তা থেকে সরে এসেছেন।

প্রতিবাদপত্রেও নির্মাণাধীন ফাউন্ডেশন বাড়িটি ২৩০ নং দাগে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। মোশারফ টাওয়ার সংলগ্ন নতুন মার্কেটের বিষয়ে কিছু উল্লেখ করা হয়নি।

আলোকিত নিউজের অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে, ওই সহিদ কাউন্সিলরের ভাগিনা। তিনি আরেক ভাগিনা মোস্তফার মত তাদেরকেও গেজেটভুক্ত বনভূমি ওয়ারিশ হিসেবে দেওয়ার চেষ্টা করছেন।

আরও পড়ুন : গাজীপুরে ‘বনভূমিতে’ কাউন্সিলর মোশারফের মার্কেট ও বাড়ি!

image_printপ্রিন্ট করুন
Share
  • 130
    Shares
আরও খবর