বাংলাদেশে ১৪-১৫ লাখ লোক ফেরত পাঠাতে চায় আসাম

ডেস্ক নিউজ : ভারতের আসামে চূড়ান্ত নাগরিক তালিকায় (এনআরসি) ১৯ লাখেরও বেশি মানুষ বাদ পড়েছেন।

এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মধ্যেই রাজ্যটির অর্থমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেছেন, ১৪-১৫ লাখ বিদেশিকে চিহ্নিত করা হয়েছে। বাংলাদেশকে তাদের এই ১৪-১৫ লাখ লোককে ফিরিয়ে নিতে বলা হবে।

আসামের আদিবাসীরা নিজেদের জায়গা ফিরে পাওয়ার আগ পর্যন্ত এই প্রক্রিয়া চলবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যা বলেছেন, তা আমরা আমলে নিচ্ছি না।

মানবাধিকার লঙ্ঘন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এমন কিছু ঘটবে না এবং কাউকে আটক করা হবে না। আমরা বাংলাদেশকে তাদের মানুষদের ফিরিয়ে নিতে বলব।

কিন্তু এই সময়ের মধ্যে তাদের ভোট দেওয়ার অনুমতি ও নির্দিষ্ট কিছু সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে না। আইনি প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে নিজেদের নাগরিকত্ব প্রমাণ করার সুযোগ পাবেন।

ভারতের নিউজ ১৮-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ক্ষমতাসীন বিজেপি নেতা হিমন্ত শর্মা এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সরকার ভারতের বন্ধু এবং আমাদের সহযোগিতা করছে। অবৈধ অভিবাসীদের বিষয় তুলে ধরা হলে তারা নিয়মিতই তাদের ফেরত নিচ্ছে।

পাঁচ-ছয় লাখ মানুষ ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ থেকে আসামে এসেছে। এনআরসি শরণার্থী সনদপত্র আমলে নেয়নি।

তিনি আরও বলেন, ফরেনার্স ট্রাইব্যুনাল আপিলে তা আমলে নেওয়া হবে। ফলে তালিকা থেকে বাদ পড়াদের সংখ্যা দাঁড়াবে ১১ লাখ।

image_printপ্রিন্ট করুন
Share
  • 253
    Shares
আরও খবর