শ্রীপুরে ‘১৩ কোটি টাকার বনভূমি’ উদ্ধারে তৎপর বন বিভাগ

আলোকিত প্রতিবেদক : গাজীপুরের শ্রীপুরে বেদখল হওয়া ১৩ বিঘা বনভূমি উদ্ধারের উদ্যোগ নিয়েছে বন বিভাগ।

শ্রীপুর সদর বিটের বেড়াইদেরচালা এলাকার ওই জমির স্থানীয় বাজারমূল্য অন্তত ১৩ কোটি টাকা।

গাজীপুর সিটি মেয়রের একান্ত সচিব সেলিম শেখের বাবা শামসুল হকসহ কয়েকজন দীর্ঘদিন ধরে জমিটি দখলে রেখেছেন।

বিষয়টির ওপর গত ৫ অক্টোবর আলোকিত নিউজ ডটকমসহ কয়েকটি পত্রিকায় সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

সরেজমিনে প্রাপ্ত তথ্যমতে, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ২ নম্বর সিএন্ডবির পাশে কেওয়া মৌজার সিএস ও এসএ ৯৩৩ নং দাগের বনভূমি। গেজেটভুক্ত হলেও তা পার্ট দাগ নয়।

সেখানে সেলিম পরিবারের পাঁচটিসহ ১০টি বাড়ি ও তার ভাইয়ের শতদল শিশু একাডেমি গড়ে উঠেছে। ভাড়া দেওয়া হয়েছে প্রায় ১০০ ঘর।

সেলিম পরিবারের দখলীয় বনভূমির পরিমাণ প্রায় ১০ বিঘা। অবশিষ্ট খালি জায়গা বাগান সৃজনসহ নানাভাবে দখলের পাঁয়তারা চলছে।

সেলিম শেখের চাচা আবুল কালাম আজাদ স্বেচ্ছায় গত ৩ অক্টোবর ঢাকা বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইউছুপ বরাবর বনভূমি উদ্ধারের আবেদনও করেন।

তিনি আলোকিত নিউজকে বলেন, ওই জমির মালিকানা নিয়ে আদালতে মামলা করলে বন বিভাগের পক্ষে রায় হয়। দখল নিয়ে ঝগড়া-বিবাদ লেগে থাকায় পারিবারিক শান্তি ও সুষ্ঠু পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে।

এ ব্যাপারে শ্রীপুর রেঞ্জ কর্মকর্তা আনিসুল হকের সাথে মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি কল ধরেননি।

বিট কর্মকর্তা সেলিম মিয়া আলোকিত নিউজকে বলেন, আমরা মাপজোখ করে খুঁটি দিয়েছি। দুটি ঘরের নির্মাণ কাজও বন্ধ করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ৯৩৩ ও ৯৩৪ নং দাগে বনভূমি ২১ বিঘার ওপরে। আমরা যাওয়ার পর সবাই পালিয়ে যায়।

এদিকে আলোকিত নিউজে প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ার পর ওই দিন সন্ধ্যার দিকে সম্পাদককে ফোন করেন সেলিম শেখ।

তিনি বলেন, এমন কিছু করবেন না, যেটা আপনার ক্যারিয়ারের ওপর হুমকি হয়। আদার বেপারি জাহাজের খবর কখনো নিবেন না।

সেলিম শেখ আরও বলেন, ডিআরইউ (ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি) চিনেন? ওখানে গিয়ে আমার নাম বলবেন।

আরও পড়ুন : শ্রীপুরে ১৩ কোটি টাকার বনভূমিতে ১০ বাড়ি ও কিন্ডারগার্টেন!

Print Friendly, PDF & Email
Share
  • 354
    Shares
আরও খবর