কাপাসিয়ায় নামাজ ও জিকিরের তাগিদ দিলেন আহমদ শফী

শামসুল হুদা লিটন, কাপাসিয়া : হেফাজত ইসলামের আমির শাহ আহমদ শফী বলেছেন, আল্লাহর ঘর মসজিদ আর নবীর ঘর হল মাদ্রাসা। মাদ্রাসা হাক্কানি আলেম তৈরির কারখানা।

তিনি বলেন, আখেরাতের মুক্তির লক্ষ্যে নবীর ঘর মাদ্রাসা পরিচালনা করার জন্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিন। নিজ এবং পরিবার-পরিজনকে জাহান্নামের আগুন থেকে বাঁচাতে হবে।

বৃহস্পতিবার গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার মাদ্রাসা নূরুল কুরআন আল ইসলামিয়া বড়জোনার ১৪ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত ইসলামী মহাসম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আহমদ শফী এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, নামাজ কায়েম করতে হবে। কোন মুসলমানের ঘরে যেন কেউ বেনামাজি না থাকে।

এক ওয়াক্ত নামাজ না পড়লে দুই কোটি ৮৮ লাখ বছর জাহান্নামের আগুনে জ্বলতে হবে। সর্বদা আল্লাহর জিকিরের মধ্যে থাকতে হবে।

বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের নির্বাহী সদস্য আশেকে মোস্তফার সভাপতিত্বে সম্মেলন উদ্বোধন করেন তানজিমুল মাদারিসিল কওমিয়্যার চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি ছিলেন নির্বাচন কমিশনের সাবেক উপ-সচিব সামসুল আলম, আশরাফ আলী, মুফতি মনসুরুল হক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুহম্মদ শহীদুল্লাহ, উপজেলা চেয়ারম্যান আমানত হোসেন খান, ভাইস-চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ, ওসি রফিকুল ইসলাম ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান সাখাওয়াত হোসেন প্রধান।

সম্মেলনে কওমি মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষকসহ হাজার হাজার মুসল্লি অংশগ্রহণ করেন। আহমদ শফী হাফেজ ছাত্রদের মাথায় পাগড়ি পরিয়ে দেন।

এর আগে দুপুরে তিনি হেলিকপ্টারে করে সম্মেলনস্থলে আসেন। চার শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক শৃঙ্খলা রক্ষায় দায়িত্ব পালন করেন।

image_printপ্রিন্ট করুন
Share
আরও খবর