গাজীপুরের জাঙ্গালিয়াপাড়ায় বনের ক্ষতি করে বাগদাদের প্রজেক্ট!

আলোকিত প্রতিবেদক : গাজীপুরে বনভূমির ক্ষতিসাধন করে বাগদাদ হোল্ডিংয়ের বাউন্ডারি ওয়ালের নির্মাণ কাজ চলছে।

জাতীয় উদ্যান রেঞ্জের বাউপাড়া বিটের জাঙ্গালিয়াপাড়া এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে প্রক্রিয়াটি চললেও দেখার যেন কেউ নেই।

বিষয়টির ওপর গত বছরের ৫ জানুয়ারি আলোকিত নিউজ ডটকমে একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছিল।

সরেজমিনে দেখা যায়, নগরীর বাংলাবাজারের উত্তর দিকে বিপুল পরিমাণ নিচু জমি কিনেছে বাগদাদ হোল্ডিং। এতে প্রবেশের কোন রাস্তা নেই।

প্রজেক্টটির চারদিকে বনভূমি। পূর্ব ও উত্তর পাশে আকাশমনি বাগান।

বেশ কয়েক বছর আগে দক্ষিণ পাশের গেজেটভুক্ত বনভূমি দখল করে আধা পাকা রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। ১০ ফুট প্রস্থের ওই রাস্তার দৈর্ঘ্য অন্তত ৫০০ ফুট।

রাস্তাটি দিয়ে ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে ট্রাকযোগে মাটি এনে ভরাট কাজ করা হয়। সম্প্রতি ইট ও বালু এনে পশ্চিম পাশের বাউন্ডারি ওয়ালের কাজ শুরু হয়।

মাটি ভরাটের আগে পূর্ব পাশে লোকাল ডিমারকেশনের নামে খুঁটি পুঁতে বিট অফিস। খুঁটিগুলোও বাউন্ডারি ওয়ালের ভেতরে পড়েছে।

কিন্তু ওয়াল অপসারণে কোন ব্যবস্থা নেয়নি কর্তৃপক্ষ। উল্টো আবারও নির্মাণ কাজের অনুমতি দিয়েছে।

জানতে চাইলে বিট কর্মকর্তা আজাদুল কবির আলোকিত নিউজকে বলেন, বাগদাদ গত বছর যৌথ ডিমারকেশন করেছে। ডিমারকেশনে পশ্চিম পাশ দিয়ে রাস্তা দেখানো হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বাগদাদ আগেও একটি ডিমারকেশন করেছে। বাউন্ডারির ভেতরে বনের জমি নেই।

এদিকে ডিমারকেশনে পশ্চিম পাশ দিয়ে রাস্তা দেখানো হলেও বাস্তবে রাস্তা নেই। সেখানে উঁচু বাউন্ডারি ওয়ালের কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট একজন বলেন, বাগদাদের কর্মকাণ্ডে বন ও পরিবেশের ক্ষতি হচ্ছে। বন কর্মকর্তারাই প্রতিষ্ঠানটিকে সুযোগ দিচ্ছেন।

বাগদাদ হোল্ডিংয়ের মালিক আবুল হাসনাত আলোকিত নিউজকে বলেন, রাস্তা দেখিয়ে ডিমারকেশন পাওয়ার দরকার ছিল, পেয়েছি। যখন দরকার হবে, তখন সবই হবে।

এ ব্যাপারে রেঞ্জ কর্মকর্তা রেজাউল করিম আলোকিত নিউজকে বলেন, বাগদাদ ডিমারকেশন করে বাউন্ডারি ওয়াল করছে। তারা শিল্প কারখানা করলে আমরা এনওসি দিব না।

আরও পড়ুন : গাজীপুরের বাউপাড়া বিটে বাগদাদের বন দখল!

image_printপ্রিন্ট করুন
Share
  • 374
    Shares
আরও খবর