গাজীপুরে বনের উপকারভোগীর বিরুদ্ধে মিথ্যা বন মামলা!

আলোকিত প্রতিবেদক : গাজীপুরে এক উপকারভোগীকে মিথ্যা বন মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে।

জাতীয় উদ্যান রেঞ্জের বাউপাড়া বিটের এ ঘটনায় জনমনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

সরেজমিনে জানা যায়, বাহাদুরপুর এলাকার তারা মিয়া (৪৮) মাস্টারবাড়ি বাজারে ভাতের হোটেল চালান। ২০০৫-০৬ সালে তিনি আকাশমনি বাগানের অংশীদার হন।

গত বছর বাগান বিক্রি হলে এক লাখ সাত হাজার ৫৫০ টাকার চেক পান। এরপর প্রতিবেশী সাহাজ উদ্দিন বাগানটির অংশীদার হতে তৎপরতা শুরু করেন।

গত ১ জুন সকাল ১০টার দিকে কে বা কারা বাগানের পাশ থেকে একটি কড়ই গাছ কেটে ফেলে। এ ঘটনায় রেঞ্জ কর্মকর্তা রেজাউল করিম অতি উৎসাহী হয়ে তারা মিয়ার বিরুদ্ধে মামলার নির্দেশ দেন।

পরে বাউপাড়া বিট কর্মকর্তা আজাদুল কবির মামলা দাখিল করেন। যা এখন বিভাগীয় বন কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রক্রিয়াধীন।

তারা মিয়া আলোকিত নিউজকে বলেন, গাছ কাটার সময় আমি হোটেলে ছিলাম। সুষ্ঠু তদন্ত হলে অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হবে।

মামলার কারণ হিসেবে তিনি বলেন, রেঞ্জ কর্মকর্তা আমার হোটেলে এসে খেয়ে ৫০ হাজার টাকা না দিলে প্লট অন্যজনকে দেওয়া হবে বলে হুমকি দেন। পরে অফিসে গিয়ে ১০ হাজার টাকা দিতে চাইলে নেননি।

তারা মিয়া বলেন, এরপর হঠাৎ শুনি গাছ কাটা হয়েছে। এখন জানতে পারলাম হয়রানির উদ্দেশে মামলাও হয়েছে।

রেঞ্জ অফিস সূত্রে জানা যায়, মামলায় গাছটির মূল্য দেখানো হয়েছে চার হাজার টাকা। আর পরিবেশ ও প্রতিবেশের ক্ষতি দেখানো হয়েছে ৫০ হাজার টাকা।

এ ব্যাপারে রেঞ্জ কর্মকর্তা রেজাউল করিমের সাথে মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি কল ধরেননি।

image_printপ্রিন্ট করুন
Share
  • 223
    Shares
আরও খবর