কাপাসিয়ায় ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ প্রধান শিক্ষক জোতীষের দৌড়ঝাঁপ

আলোকিত প্রতিবেদক : গাজীপুরের কাপাসিয়ার নাশেরা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জোতীষ চন্দ্র দেবনাথের বিরুদ্ধে নানা দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগগুলোর মধ্যে রয়েছে অর্থের বিনিময়ে জাল সনদ প্রদান, নিয়োগ বাণিজ্য, শিক্ষক-কর্মচারীদের সাথে দুর্ব্যবহার ও স্বেচ্ছাচারিতা।

ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি কামরুজ্জামান ভূঁইয়া সোহেল জানান, প্রধান শিক্ষক জোতীষ দেবনাথ ও অফিস সহকারী ইউনুছ আলী সরকার ২০০৯ সালে যোগদান করেন। কিছুদিন পর প্রধান শিক্ষক তাকে ডিগ্রি পাসের সনদ দিয়ে সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগের প্রলোভন দেখান।

পরে ইউনুছ আলীর সাথে পাঁচ লাখ টাকার চুক্তি হয়। তিনি ৫০ হাজার টাকা সুদে নিয়ে প্রধান শিক্ষকের হাতে দিলে জাল সনদ প্রদান করা হয়।

সনদটি জাল প্রমাণিত হওয়ায় শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা থেকে বাদ পড়েন ইউনুছ আলী। প্রায় ১০ বছরেও টাকা ফেরত না পেয়ে গত ২২ আগস্ট তিনি কমিটি বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন।

গত ২৪ আগস্ট কমিটির সভায় প্রধান শিক্ষক দোষ স্বীকার করে টাকা ফেরত দেওয়ার লিখিত অঙ্গীকার করেন। কিন্তু এখন উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে শিক্ষার্থীদের উত্তেজিত করার চেষ্টা করছেন।

এ অবস্থায় বিদ্যালয়ের ১৪ জন শিক্ষক-কর্মচারী জরুরি সভা করে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনাস্থা দিয়েছেন। কমিটি তাকে পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলেছে।

একাধিক অভিভাবক জানান, প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে চারজন শিক্ষক নিয়োগ দিয়েছেন বলে প্রচার রয়েছে। দুর্নীতির দায় থেকে বাঁচতে বিদ্যালয় ফাঁকি দিয়ে চলছে দৌড়ঝাঁপ।

এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক জোতীষ দেবনাথের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি দাবি করেন, এসব ষড়যন্ত্র। থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Share
  • 155
    Shares
আরও খবর