শ্রীপুরে শিশু ও ছাত্রী ধর্ষিত : সৎ বাবা ও শিক্ষক গ্রেফতার

সাদেক মিয়া, শ্রীপুর : গাজীপুরের শ্রীপুরে শিশুকে (৯) ধর্ষণের অভিযোগে সৎ বাবা ও ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শিশুটির মা জানান, তিনি খাবার হোটেলে রান্নার কাজ করেন। তার মেয়েকে দুই মাস আগে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করা হয়।

শিশুটি কয়েক দিন ধরে বমি ও মাথা ঘোরানোসহ অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে জিজ্ঞাসা করলে সে ঘটনা খুলে বলে।

এ ঘটনায় সৎ বাবা তরিকুল ইসলামকে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার বালিপাড়া গ্রামের হাসমত আলীর ছেলে।

গ্রেফতারকৃত তরিকুল

শ্রীপুর থানার এসআই হারুন মিয়া জানান, দুই স্ত্রী থাকা সত্ত্বেও কয়েক বছর আগে আরেকটি বিয়ে করেন তরিকুল। তিনি টেপিরবাড়ী গ্রামের শামসুদ্দিন মুন্সির বাড়িতে ভাড়া থেকে বাস ও ট্রেনে হকারি করেন।

শুক্রবার ইউপি মেম্বার আফছার উদ্দিনের কাছ থেকে খবর পেয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ভিকটিমকে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

অপরদিকে কম খরচে মাদ্রাসায় ভর্তি করার কথা বলে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে গোপন রুমে দুই মাস আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

অভিযুক্ত আসাদুজ্জামান (৩৫) খুলনার কসবা উপজেলার উত্তর বেতকাশি গ্রামের মোবারক আলীর ছেলে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে গাজীপুরের দক্ষিণ সালনা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাব-১-এর পোড়াবাড়ী ক্যাম্প কমান্ডার আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, আসাদ ভিকটিমকে গত ২ আগস্ট শ্রীপুরের ধলাদিয়া মাদ্রাসায় ভর্তি না করে একটি গোপন রুমে আটকে ধর্ষণ ও ভিডিও করেন। মেয়েটির বাবার লিখিত অভিযোগ পেয়ে অভিযান চালানো হয়।

আসাদ ধলাদিয়া মহিলা মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেন। তার স্ত্রী ও দুই ছেলে সন্তান রয়েছে।

image_printপ্রিন্ট করুন
Share
  • 157
    Shares
আরও খবর