শ্রীপুরে লিচু বাগানে মৌবাক্স, পরাগায়ন বেড়ে ফলনও বেশি

সাদেক মিয়া, শ্রীপুর : গাজীপুরের শ্রীপুরে লিচু বাগানগুলো ফুলে ফুলে ভরে গেছে। লাভজনক এ চাষে মধু সংগ্রহকারী মৌয়ালের সংখ্যাও বাড়ছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এ এস এম মূয়ীদুল হাসান জানান, উপজেলায় ৭২৭ হেক্টর জমিতে কয়েকটি জাতের লিচু চাষ হয়। চলতি বছর উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে তিন হাজার ৮৯০ মেট্রিক টন।

মুলাইদ গ্রামের মৌচাষি মোহাম্মদ আলী বলেন, শ্রীপুরে যে পরিমাণ লিচু বাগান রয়েছে, তাতে বসন্তকালে বাক্স স্থাপন করে শত শত টন মধু সংগ্রহ করা সম্ভব। আবহাওয়া বৃষ্টি ও ঠান্ডামুক্ত থাকলে প্রতি ১০০ বাক্স থেকে ৮০০-৮৫০ কেজি মধু সংগ্রহ করা যায়।

টেপিরবাড়ী মৃধাপাড়া এলাকার তিনটি বাগানে তার ৩৫৫টি বাক্স বসানো হয়েছে। মধু সংগ্রহের এ সময়ে উপজেলায় ২০০ প্রশিক্ষিত শ্রমিক দুই মাসের জন্য কাজের সুযোগ পান।

মৌয়ালরা বলেন, অপ্রশিক্ষিত লোকের মাধ্যমে মধু সংগ্রহ ও পরিচর্যা করলে মৌমাছির ক্ষতি হয়। চাকে মধু রয়ে যায় ও লার্ভা নষ্ট হয়ে মারা যায়।

উপজেলা মৌচাষি সমবায় সমিতির অধীনে ৩৫ জন সদস্য রয়েছেন। দুই বছর ধরে তাদেরকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে না।

কেওয়া গ্রামের বাগান মালিক নূরুল আলম মাস্টার বলেন, কয়েক বছর ধরে লিচুর ফুল ফোটার পর কীটনাশক দেওয়া হয় না। এতে মধু সংগ্রহে সুবিধা হয়।

আরেক বাগান মালিক ফরিদ হোসেন আকন্দ বলেন, বাগানে মৌমাছির বাক্স স্থাপন করায় পরাগায়ন বেশি হয়। ফলে লিচুর উৎপাদনও ২৫ ভাগ বেশি হয়।

image_printপ্রিন্ট করুন
Share
  • 169
    Shares
আরও খবর