কাপাসিয়ার কুড়িয়াদীতে স্ট্রবেরি চাষে বিদ্যুতের চমক

মাহাবুর রহমান, কাপাসিয়া : আগে শাকসবজি চাষ করতাম। দুই বছর ধরে স্ট্রবেরি চাষ করছি।

আলহামদুলিল্লাহ, ভালোই ফলন হচ্ছে। স্ট্রবেরি চাষ করে আমার লস নেই, ভালোই লাভ পাচ্ছি।

কথাগুলো বলছিলেন গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার সিংহশ্রী ইউনিয়নের কুড়িয়াদী গ্রামের কৃষক তোফায়েল আহমেদ বিদ্যুৎ।

তিনি বাড়ির পাশে শীতলক্ষ্যা নদীর চরে পুষ্টিকর স্ট্রবেরির তিন হাজার চারা রোপণ করেছেন। এই বিদেশি ফলের ক্ষেত দেখতে বিভিন্ন স্থান থেকে দর্শনার্থীরাও আসছেন।

বিদ্যুৎ আলোকিত নিউজকে বলেন, স্ট্রবেরি নিয়ে আমাদের ঢাকায় যেতে হয় না। গাড়িতে দিয়ে দিলে আড়তদার নামিয়ে নেন।

আড়তদার টাকাও ব্যাংকের মাধ্যমে পাঠিয়ে দেন। একদিন পরপর ৪০-৫০ কেজি করে স্ট্রবেরি পাঠাতে পারি।

বিদ্যুৎ বলেন, এলাকার হুমায়ুন ভাই আমাকে স্ট্রবেরি চাষের পরামর্শ দেন। শ্রীপুরের টিউলিপ বাগানের মালিক দেলোয়ার হোসেনের কাছ থেকে চারা এনে চাষ করছি।

স্ট্রবেরির পাশাপাশি তিনি বিদেশি জাতের ক্যাপসিকাম মরিচের এক হাজার চারা রোপণ করেছেন। ফলনও ভালো হয়েছে।

বিদ্যুৎ বলেন, স্ট্রবেরির শত্রু হচ্ছে বৃষ্টির পানি ও পোকা। পোকা নিধনের জন্য কীটনাশক দেওয়া হয়।

ব্যয়বহুল স্ট্রবেরির চারা রোপণের ৪০ দিন পর গাছে ফলন আসতে শুরু করে। দুই-তিন মাস পর্যন্ত ফলন আসে।

স্বাবলম্বী এই কৃষক আরও বলেন, স্ট্রবেরি এখন ৫০০-৭০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করা হচ্ছে। তাকে দেখে অন্যরাও উৎসাহিত হচ্ছেন।

image_printপ্রিন্ট করুন
Share
  • 725
    Shares
আরও খবর