গাজীপুরে ডিমারকেশন ছাড়াই বন ঘেঁষে গড়ে উঠল লেবেল ফ্যাক্টরি

আলোকিত প্রতিবেদক : গাজীপুরে ডিমারকেশন এবং বন বিভাগের অনাপত্তিপত্র ছাড়াই কারখানার বাউন্ডারি ওয়াল ও ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে।

ভাওয়াল রেঞ্জের ভবানীপুর বিটের শিরিরচালা এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে এ ঘটনা ঘটলেও কোন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না।

ফলে মূল্যবান বনভূমি বেহাত এবং পরিবেশ ও প্রতিবেশগত ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

সরেজমিনে জানা যায়, বাঘের বাজার থেকে বিট অফিস রোড হয়ে কিছুদূর উত্তরে ট্রিমকো গ্রুপের লেবেল ফ্যাক্টরি। কারখানার পশ্চিম ও উত্তর পাশ ঘেঁষে সিএস ২৫৯ নং দাগের গেজেটভুক্ত বনভূমি। দক্ষিণ ও পূর্ব পাশ দিয়ে রেকর্ডের রাস্তা।

কারখানা কর্তৃপক্ষ চার-পাঁচ বছর আগে জেলা প্রশাসন ও বন বিভাগের সাথে যৌথ ডিমারকেশন ছাড়াই উঁচু বাউন্ডারি ওয়াল নির্মাণ সম্পন্ন করে। কয়েক মাস ধরে উত্তর পাশে নতুন বড় ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। কারখানা স্থাপন সংক্রান্ত বন বিভাগের অনাপত্তিও নেওয়া হয়নি।

বন ঘেঁষে বাউন্ডারি ওয়াল নির্মাণ

কারখানাটির পশ্চিম পাশ দিয়ে বাউন্ডারি ওয়াল ২০০ ফুটের বেশি ও উত্তর পাশে প্রায় ১৫০ ফুট। উভয় পাশের বাউন্ডারি ওয়ালের ভেতরে কিছু বনভূমি রয়েছে বলে স্থানীয়রা ধারণা করছেন।

এ ব্যাপারে কারখানায় গেলে প্রশাসনিক কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন তাদের ঢাকাস্থ প্রধান কার্যালয়ে গিয়ে কথা বলতে বলেন। তিনি সেখানকার মোবাইল নম্বর দিতেও অস্বীকৃতি জানান।

এলাকাবাসী বলছেন, তারা বনভূমি সংলগ্ন জমিতে সাধারণ বাড়িঘর করলেও বিট অফিস ডিমারকেশনের জন্য চাপ দেয়। তখন হয়তো কয়েক মাস ঘুরে এক-দুই লাখ টাকা ঘুষ দিয়ে ডিমারকেশন করতে হয়, নয়তো অফিস ম্যানেজ করতে হয়। আর কোম্পানিরা বনভূমি দখল করলেও সহজে কিছু হয় না।

এ ব্যাপারে বিট কর্মকর্তা শাহান শাহ আকন্দ আলোকিত নিউজকে বলেন, তিনি কিছুই জানেন না। সরেজমিনে দেখে মালিককে নোটিশ দেওয়া হবে।

আরও খবর

Contact Us