কাপাসিয়ায় আ.লীগ নেতা হিরণ মোল্লাকে ‘অযোগ্য’ ও ‘অসাধু’ বললেন তাজউদ্দীন কন্যা মিমি

আলোকিত প্রতিবেদক : কাপাসিয়ার রায়েদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদ্য সাবেক সভাপতিকে ‘অযোগ্য’ ও ‘অসাধু’ বলে মন্তব্য করেছেন বঙ্গতাজ তাজউদ্দীন কন্যা মাহজাবিন আহমদ মিমি।

তিনি গত ৭ মার্চ ভোরে তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে ওই মন্তব্য করেন।

এ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে।

মিমি তার স্ট্যাটাসে লিখেছেন, রায়েদ ইউপি নির্বাচনে বর্তমান চেয়ারম্যান আবদুল হাইয়ের প্রতি তাদের পূর্ণ সংহতি ও সমর্থন রয়েছে।

রায়েদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি হিরণ মোল্লার নামের ইংরেজি আদ্যাক্ষর ‘এইচএম’ উল্লেখ করে তিনি মন্তব্য করেন, কয়েক বছর আগে যে ব্যক্তিকে বিএনপির হান্নান শাহর গলায় মালা পরাতে দেখা গেছে, সেই ব্যক্তি এখন বোল পাল্টে আওয়ামী লীগের টিকিটে নির্বাচন করার স্পর্ধা দেখাচ্ছে।

স্ট্যাটাসের শেষাংশে ষড়যন্ত্রকারীদের উদ্দেশ্য করে মিমি বলেন, অযোগ্য ও অসাধু প্রার্থীকে রায়েদবাসীর ওপর চাপিয়ে দেবার অপকৌশল থেকে বিরত থাকুন।

আলোচিত স্ট্যাটাসটি বেশ কয়েকজন শেয়ার করেছেন। এর মধ্যে একজন আমিনা খাতুন মুনমুন। তিনি চেয়ারম্যান আবদুল হাইয়ের মেয়ে ও উপজেলা আওয়ামী মহিলা লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক।

এ ব্যাপারে মুনমুনের সাথে মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

বিষয়টি নিয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষক অ্যাডভোকেট আসাদুল্লাহ বাদলের সাথে কথা হয় আলোকিত নিউজের।

তিনি বলেন, এটা সুবিধাবাদী আচরণ। কারণ হিরণ মোল্লাকে তারাই দলের সভাপতি করেছেন। আর হিরণ মোল্লার ভাই ‘পশুদম্পতি’ খ্যাত কাজল মোল্লা এমপির কথিত এপিএস ছিলেন। এখন নিজেদের লোককে চেয়ারম্যান প্রার্থী করতে দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে।

আরও খবর

Contact Us