কাপাসিয়ায় বড় ভাই-ভাতিজার বিরুদ্ধে ছোট ভাইয়ের মামলাবাজি!

আলোকিত প্রতিবেদক : গাজীপুরের কাপাসিয়ায় বড় দুই ভাই ও ভাতিজার বিরুদ্ধে একের পর এক মামলা দিচ্ছেন ছোট ভাই। এতে তারা ব্যাপক হয়রানির মুখে পড়েছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উপজেলার বারিষাব ইউনিয়নের বর্জাপুর গ্রামের মিয়াজ উদ্দিন কৃষি কাজ করেন। তার অপর তিন ভাই হলেন নিয়ত আলী, জিন্নত আলী ও সিরাজ উদ্দিন। এর মধ্যে জিন্নত আলী মারা গেলে তিনি ভাতিজা ড. লুৎফুর রহমানের কাছ থেকে সাড়ে ১১ শতাংশ জমি ক্রয় করেন। লুৎফুর নাবালক থাকায় সাবালক হয়ে রেজিস্ট্রি করে দেওয়ার চুক্তি হয়।

পরে লুৎফুর আর কথা রাখেননি। তিনি তার ছোট চাচা সিরাজ উদ্দিনের কাছে ওই জমি বিক্রি করে দেন। এরপর শুরু হয় পারস্পরিক দ্বন্দ্ব ও মামলা-মোকদ্দমা।

সিরাজ উদ্দিনের দুই ছেলে কুয়েত প্রবাসী। বিষয়টি নিয়ে মেম্বার-চেয়ারম্যানের মধ্যস্থতায় একাধিকবার সালিশি বৈঠক হয়। কিন্তু টাকার দাপটে তিনি কাউকে মানেননি।

গত বছর সিরাজ উদ্দিন ও নিয়ত আলীর মধ্যে ঝগড়া হয়। সিরাজ উদ্দিনের মেয়ে পাপিয়া নিয়ত আলীকে দাড়ি ধরে টান দেন। এ সময় মিয়াজ উদ্দিনের ছেলে ইউনিয়ন পরিষদের চৌকিদার মোকলেছুর রহমান আকাশ তাকে থাপড় দিয়ে থামান। এ নিয়েও থানায় মামলা করা হয়। মামলায় নিয়ত আলী ও আকাশের সাথে মিয়াজ উদ্দিনকেও আসামি করা হয়।

সিরাজ উদ্দিন গত বছরের নভেম্বরে আকাশসহ ওই তিনজনের বিরুদ্ধে আদালতে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি ও মারধরের মামলা করেন। মামলা নং ৪২০/১৫। আদালত কাপাসিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অভিযোগ তদন্তের নির্দেশ দেন।

পরে দায়িত্ব পেয়ে এসআই শাহজাহান মিয়া অভিযোগটি তদন্ত করেন। তদন্তে চাঁদাবাজির কোন সত্যতা মেলেনি। তদন্তকারী কর্মকর্তা এরই মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেছেন। যার স্মারক নং ৩৩৬/১৬।

আকাশ অভিযোগ করেন, তাদেরকে আরও মামলার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। সিরাজ উদ্দিনের কিছু কর্মকান্ডে তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

এ ব্যাপারে সিরাজ উদ্দিনের মোবাইলে ফোন করলে তার মেয়ে পাপিয়া কল ধরেন। জানতে চাইলে তিনি মামলাগুলো মিথ্যা নয় বলে দাবি করেন।

আরও খবর

Contact Us